Anti National Slogan Made by Kanhaiya is not found to be fake

By Staff Reporter-13rd June, 2017

Jawaharlal Nehru University student leader Kanhaiya Kumar and his colleagues are in peril. The video of the anti-national slogan was not found to be fake.

 

The Central Intelligence Agency said on Monday that all video footage received from a private channel was examined in the Central Intelligence lab.
A senior officer of the CBI, said that the case against JNU Student leader Kanhaiya Kumar and several left- leaders, which is alleged to have been true.
The JNU student leader Kanhaiya Kumar is accused of giving anti-national slogan to criticize Narendra Modi government in the campus. Two other university students Umar Khalid and Anirban Bhattacharya are also accused of giving anti-national slogan. After this, the Delhi Police,made a case against them. Many left student leaders including Kanhaiya were arrested in February. All of them are currently free on bail.
Meanwhile, the video that was sent to Gandhinagar’s Central Forensic Lab or CFSL for testing. CFSL said in a report that the footage collected from a private channel is genuine. The same video was then examined at the CBI Lab.It is also proved in CBI lab that there is no artwork in this video. The matter is now under the court, all reports will be submitted to the court very soon.

কানাইয়া কুমার-এর দেশ বিরোধী স্লোগানের ভি.ডি.ও টি সত্য

বিপদে পড়েছেন জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নেতা কানাইয়া কুমারও তার সহকর্মীরা । দেশবিরোধী স্লোগানের ভিডিওটি জাল হিসেবে পাওয়া যায়নি বলে সোমবার জানিয়ে দিল সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি ।
একটি বেসরকারী চ্যানেল থেকে প্রাপ্ত সমস্ত ভিডিও ফুটেজ সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স ল্যাবে পরীক্ষা করা হয় ।
সিবিআইয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, জেএনইউ ছাত্র নেতা কানাইয়া কুমার এবং কয়েকজন বামপন্থীদের বিরুদ্ধে মামলাটি সত্য বলে প্রমাণিত হয়েছে ।
ক্যাম্পাসে নরেন্দ্র মোদির সরকারকে সমালোচনা করার জন্য দেশবিরোধী স্লোগান দেওয়ার অভিযোগে জেএনইউ’র ছাত্র নেতা কানায়া কুমার অভিযুক্ত । দুজন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী উমর খালিদ ও অর্ণব্বান ভট্টাচার্যও দেশবিরোধী স্লোগান দেওয়ার অভিযোগে অভিযুক্ত। এর পর দিল্লি পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে । কানাইয়া সহ অনেক বাম ছাত্র নেতা ফেব্রুয়ারি মাসে গ্রেফতার হন । তাদের সব বর্তমানে জামিনে মুক্ত।
এদিকে, ভিডিওটি পরীক্ষার জন্য গান্ধীনগর কেন্দ্রীয় ফরেনসিক ল্যাব বা সিএফএসএলে পাঠানো হয়েছিল ।সিএফএসএল একটি রিপোর্টে বলেছে যে প্রাইভেট চ্যানেল থেকে সংগৃহীত ফুটেজ আসল। এই ভিডিওটি তখনই সিবিআই ল্যাব এ পরীক্ষা করা হয় । সিবিআই পরীক্ষাগারে প্রমাণিত হয়েছে যে এই ভিডিওতে কোন আর্টওয়ার্ক নেই। বিষয়টি এখন আদালতের অধীনে, সমস্ত রিপোর্ট আদালতে জমা দেওয়া হবে খুব শীঘ্রই।

More Related News From Chakdaha 24x7